Auto Image Slider

হযরত আবু সাঈদ খুদরী (রা.)

হযরত আবু সাঈদ খুদরী (রা.)

নাম : সাদ।

উপনাম : আবু সাঈদ।

নেসবত : খুদরী।

পিতার নাম : মালেক।

মাতার নাম : আনিসা বিনতে আবুল হারেস।

তিনি একজন আনসারী সাহাবী। তাঁর পূর্বপুরুষ খুদরা ইবনে আওফের নামানুসারে তাঁকে খুদরী বলা হয়।

জন্ম ও শৈশব : তিনি হিজরতের ১০ বছর পূর্বে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা মালেক রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু ওহুদ যুদ্ধে শাহাদাতবরণ করেন। কিন্তু তিনি তাঁর সন্তানের জন্য ধন-সম্পদ কিছুই রেখে যেতে পারেননি। ফলে তিনি অর্থনৈতিক দুঃখ-কষ্টের মধ্য দিয়ে বেড়ে উঠেন । আর্থিক এই দৈন্যতা স্বত্বেও তিনি রাসুলে কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের মজলিশ থেকে সামান্য সময়ের জন্যও দূরে থাকতেন না।

গুণাবলী : তিনি ছিলেন হাফেজে হাদীস এবং শীর্ষস্থানীয় আলেমদের একজন। আর্থিক সংকটের কারণে তিনি রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের কাছে সাহায্য প্রার্থনা করেন। রাসুল বললেন- ‘যে ধন-সম্পদ চায় আল্লাহ তাকে ধনী করেন, আর যে ক্ষমা প্রত্যাশা করে আল্লাহ তাকে ক্ষমা করেন। একথা শোনার পর আবু সাঈদ খুদরী রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু আল্লাহ তাআলার উপর সম্পূর্ণ তাওয়াক্কুল করে জীবন যাপন শুরু করেন । ফলশ্রুতিতে আল্লাহ তাআলা তাঁকে প্রচুর ইজ্জত-সম্মান দান করেন।

হাদীস শাস্ত্রে তাঁর অবদান : ইবনুল আছীর রহমাতুল্লাহি আলাইহি বলেন- সর্বাধিক হাদীস বর্ণনাকারীদের মধ্যে তিনি অন্যতম একজন । তিনি সর্বমোট ১১৭০ টি হাদীস রেওয়ায়েত করেছেন । ইমাম বুখারী ও মুসলিম রহমাতুল্লাহি আলাইহিমা যৌথভাবে ৪৩ টি, এককভাবে ইমাম বুখারী ১৬ টি এবং ইমাম মুসলিম ৫২টি হাদীস বর্ণনা করেছেন।

মৃত্যু : তিনি ৭৪ হিজরীতে শুক্রবার দিন মদীনা মুনাওয়ারায় ইন্তিকাল করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর । জান্নাতুল বাকিতে তাঁকে সমাহিত করা হয়। রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের মৃত্যুর পর তিনি ৬৪ বছর বেঁচেছিলেন।

তথ্যসূত্র- ১. তাযকিরা ১/৩৬, উসদুল গাবা ৪/৪৬৭।

আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.)

আনাস ইবনে মালেক (রা.) এর জীবনী

আবু হুরায়রা (রা.) এর জীবনী

আমাদের ইউটিউব ইউটিব চ্যানেল

Leave a Comment