Auto Image Slider

আনাস ইবনে মালেক (রা.) এর জীবনী

আনাস ইবনে মালেক (রা.) এর জীবনী
নাম : আনাস
উপনাম : আবু হামজা, আবু উমামা
উপাধি : খাদেমুর রাসুল
পিতার নাম : মালেক
মাতার নাম : উম্মে সুলাইম বিনতে মিলহান
জন্ম : হযরত আনাস হিজরতের ১০ বছর পূর্বে জন্মগ্রহণ করেন।

রাসুলুল্লাহ (স.) এর খেদমত ও দোয়া : মাত্র ১০ বছর বয়স। তখন তার মা উম্মে সুলাইম মদিনায় রসুলুল্লাহ (স.) এর দরবারে শিশু আনাস কে পেশ করেন। আল্লাহর রাসূল (স.) তখন থেকেই তাকে খাদেম হিসেবে গ্রহণ করেন। তিনি দীর্ঘ ১০বছর রাসুল (স.) এর খেদমত করেছেন। মৃত্যু পর্যন্ত তিনি তার সেবায় নিয়োজিত ছিলেন। তার মতো এতো দীর্ঘ সময় আর কেউ রাসূলুল্লাহ (স.) এর খেদমত করার সৌভাগ্য লাভ করতে পারেনি।

মায়ের আবেদনের প্রেক্ষিতে রসুলুল্লাহ (স.) তার জন্য দোয়া করেছিলেন, হে আল্লাহ তার ধন-সম্পদ ও সন্তান-সন্ততিতে বরকত দান করুন। তাকে দীর্ঘ হায়াত দান করুন। এবং তার গুনাহ মাফ করে দিন। এই দোয়ার বরকতে আল্লাহ তা’আলা তাকে প্রচুর ধন-সম্পদ, সন্তানাদি দীর্ঘ হায়াত, এবং জ্ঞান বুদ্ধি দান করেছিলেন। হযরত আনাস (রা) এর সন্তানের শংখ্যা ছিল একশত কোন কোন বর্ণনায় ৮০ জন এবং ১২০ জনের কোথাও পাওয়া যায়।

দায়িত্ব পালন এবং নির্যাতন ভোগ : হযরত আবু বকর (রা.) এর খেলাফত কালে তিনি বাহরাইনের আমেল ও গভর্নর ছিলেন। হযরত ওমর (রা.) এর শাসন আমলে তিনি বসরার মুফিতী পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। মহান সাহাবী হযরত আনাস (রা.) কে অপমান করার জন্য হাজ্জাজ-বিন-ইউসুফ নিজের মোহরযুক্ত কিছু রশি গলায় বেঁধে দিয়েছিল।

হাদিস বর্ণনায় অবদান : জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত তিনি বসরার জামে মসজিদকে কেন্দ্র বানিয়ে হাদিসের খেদমত করেছেন। তার বর্ণিত হাদীসের সংখ্যা ১২৮৬। সহি বুখারী ও মুসলিমে ১২৮। এককভাবে বুখারী শরীফে ৮৩ টি এবং মুসলিম শরীফে ৭১টি হাদীছ বর্ণিত হয়েছে।

তার প্রসিদ্ধ ছাত্রবৃন্দ : হাসান বসরী, ইবনে সিরিন, হুমাইদ, সাবেত প্রমুখ তাবেয়ীগণ তার থেকে রেওয়াত করেছেন।
ইন্তেকাল : তিনি ১০৩ বা ৯৯ বছর বয়সে ৯১ মতান্তরে ৯৩ হিজরীতে ইন্তেকাল করেন। মুহাম্মদ ইবনে সিরিন তাকে গোসল দেন। এবং কাতান
ইবনে মুদরাক তার জানাজায় ইমামতি করেন। বসরার কছর নামক স্থানে তাকে সমাহিত করা হয়।

আবু হুরায়রা (রা.) এর জীবনী

আমাদের ইউটিউব ইউটিব চ্যানেল

Leave a Comment